কৃষিজেলার খবর

কুড়িগ্রামে দ্রুত ধান কাটার পরামর্শ কৃষি বিভাগের

ঝড়-শিলাবৃষ্টির আশঙ্কা

কুড়িগ্রামে ৪০ শতাংশ ধান কাটা সম্পন্ন হয়েছে ছবি : নিজস্ব আলোকচিত্রী
কুড়িগ্রামে ৪০ শতাংশ ধান কাটা সম্পন্ন হয়েছে ছবি : নিজস্ব আলোকচিত্রী

কুড়িগ্রামে ঝড়সহ শিলাবৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে। প্রাকৃতিক এ দুর্যোগে পাকা বোরো ধান নষ্ট হতে পারে। এজন্য দ্রুত ধান কাটার পরামর্শ দিয়েছে কৃষি বিভাগ। জেলায় এখন পর্যন্ত ৪০ শতাংশ ধান কাটা সম্পন্ন হয়েছে বলেও জানিয়েছে দপ্তরটি। বোরো চাষীরা জানান, প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে পড়লে চরম ক্ষতির মুখে পড়তে হবে তাদের। হারভেস্টার দিয়ে হলেও খেতের পাকা ধান দ্রুত ঘরে তোলার পরামর্শ দিচ্ছে কৃষি বিভাগ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কৃষি বিভাগের সতর্কতার পর ফসলের মাঠেই ধান মাড়াই করছেন অনেক কৃষক। আবার কেউ শ্রমিক দিয়ে কেটে নিচ্ছেন পাকা ধান। তবে যাদের ধান এখনো পরিপক্ব হয়ে ওঠেনি দুশ্চিন্তায় রয়েছেন তারা। সবার লক্ষ্য ঝড়-বৃষ্টি বা প্রাকৃতিক দুর্যোগ হওয়ার আগেই ঘরে ধান তোলা।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের কৃষক জয়নাল আবেদীন জানান, ধান কেটে জমিতেই মাড়াই করে নিচ্ছেন তিনি। কখন বৃষ্টি নামবে তার ঠিক নেই। শিলাবৃষ্টিও হতে পারে। এ বছর কোনো প্রকার রোগবালাইয়ের কবলে পড়েনি ধান খেত। ফলনও ভালো হয়েছে। তবে বৈরী আবহাওয়ায় চিন্তিত কৃষক। প্রাকৃতিক দুর্যোগের আগেই ধান ঘরে তুলতে ব্যস্ততা তাদের কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের কৃষক এরশাদুল হক বলেন, ‘সংশয়ে আছি, আকাশের যে অবস্থা, কখন জানি শিলাবৃষ্টি হয়। ঝড় হলেও কাঁচা-পাকা সব ধানেরই ক্ষতি হবে। এজন্য দ্রুত ধান ঘরে তুলতে মাঠেই মাড়াই করছি।’

একই এলাকার কৃষক রমজান আলী বলেন, ‘আমরা ধানের সরকারি দাম পাই না। গুদামে ধান দিতে গেলে মিটার পাসসহ নানা ঝামেলায় পড়তে হয়। এজন্য ধান কাটার পর বাড়িতে পাইকারদের কাছে বিক্রি করে দিই।’ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত বছর জেলায় ১ লাখ ১৬ হাজার ৯১০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হয়েছিল। এবার হয়েছে ১ লাখ ১৭ হাজার ৩৫০ হেক্টর জমিতে। চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৫ লাখ ৬ হাজার ৫০০ টন। কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, গত বছরের চেয়ে এ বছর ধানের আবাদ বেশি হয়েছে। এ পর্যন্ত কাটা হয়েছে ৪০ শতাংশ ধান। কৃষককে হারভেস্টার মেশিন দিয়ে হলেও দ্রুত ধান কেটে ঘরে তোলার পরামর্শ দিচ্ছি।’

এমন আরো সংবাদ

Back to top button