দেশহাইলাইটস

বাজার সিন্ডিকেট প্রতিরোধে মাঠে থাকবেন মুক্তিযোদ্ধারা

দেশের মানুষের শেখ হাসিনাতেই আস্থা : ক্যাপ্টেন তাজ

সফিকুল বাহার মজুমদার টিপুঅনুমিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ক্যাপ্টেন (অব.) এ বি তাজুল ইসলাম এমপি বলেছেন, সংসদ নির্বাচন বানচালের অনেক ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত হয়েছিল। কিন্তু দেশের মানুষ শেখ হাসিনার উপর আস্থা রেখেছে। সে কারণে বাধা উপেক্ষা করে ৭ জানুয়ারি ভোট বঙ্গবন্ধুকন্যাকে টানা চতুর্থ মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী নির্বাাচিত করেছে।  বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ’র ৫২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল নির্বাচনের স্মার্ট প্যানেলের আয়োজনে আলোচনা সভা ও কেক কাটা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সংগঠনের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল আহাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও স্মার্ট প্যানেলের মহাসচিব প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা সফিকুল বাহার মজুমদার টিপুর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন সাবেক সচিব অফিসার্স ক্লাবের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান কে এম মোজাম্মেল হক, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান তানিয়া হক শোভা, বাহার উদ্দিন রেজা বীর প্রতিক, সৈয়দ আহমেদ মজুমদার তাজুল ইসলাম মো. আবুল কাসেম প্রমুখ।

ক্যাপ্টন (অব.) তাজুল ইসলাম বলেন, শেখ হাসিনা আজ আর শুধু বাংলাদেশের নন। মানবতার জননী হিসেবে হয়ে উঠেছেন বিশ্বজনীন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যেমন বিশ্বের নিপীড়িত-নির্যাতিত মুক্তির কণ্ঠস্বর ছিলেন। ঠিক তেমনি তার রক্ত ও আদর্শের যোগ্য উত্তরসূরি শেখ হাসিনাও আজ বিশ্বনেতাদের প্রথম সারির কাতারে। নিজ কর্মগুণে শেখ হাসিনা ক্রমাগত বিশ্বের বিস্ময় হয়ে উঠেছেন। তার নিজস্ব জ্ঞান ও চিন্তা-চেতনাকে কাজে লাগিয়ে একটি স্বল্পোন্নত দেশকে খুব কম সময়ে উন্নত দেশের কাতারে নিয়ে এসেছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা। উন্নয়ন আর অগ্রগতিতে বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশকে তিনি তুলে ধরছেন অনন্য উচ্চতায়।

তিনি বলেন, আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ রোল মডেল হয়েছে। যার দরুণ, স্বল্পোন্নত দেশের কাতার থেকে ২০২৬ সালে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হতে যাচ্ছে।

স্মার্ট প্যানেলের মহাসচিব প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা সফিকুল বাহার মজুমদার টিপু বলেন, বাজার সিন্ডিকেট প্রতিরোধে মাঠে থাকবেন মুক্তিযোদ্ধারা। দেশের মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানেরা শেখ হাসিনাতেই আস্থা রেখেছে। বঙ্গবন্ধুন্যা শেখ হাসিনা দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের ইশতেহারে অনেক কাজের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এ প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী কাজ করতে পারলে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশের কাতারে উন্নীত হবে। শেখ হাসিনার উপর আস্থা রেখেই দেশবাসী অপেক্ষা করছে কবে বাংলাদেশ সোনার বাংলায় রূপান্তর হবে। এর আগে মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানেরা একটি বিশাল র‌্যালি বের ধানমন্ডির বিভিন্ন সড়ক প্রদর্শন করে। ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা অর্পণ ও সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button