জেলার খবরহাইলাইটস

পরিযায়ী পাখির কলকাকলিতে মুখরিত আলমপুর

পরিযায়ী পাখিপ্রতিবছর শীতে পরিযায়ী পাখির কলকাকলিতে মুখরিত হয়ে ওঠে ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার জায়লস্কর ইউনিয়নের হাজেরা খাঁ দিঘির পাশের উত্তর আলমপুর গ্রাম। এবছরও এসেছে অতিথিরা। ফজরের আযানের আগ থেকেই শত শত পরিযায়ী পাখির কলরবে মুখরিত হয়ে ওঠে চারপাশ। আশেপাশে ঘুমন্ত সবাইকে জাগানোর দায়িত্বটা যেন তাদের উপর। তাদের কুজনে ঘুম থেকে ওঠে সবাই। অতিথিদের আগমনে পুরো জলাশয় সেজেছে এক নতুন সাজে। স্থানীয়রা বলেন, পাখিগুলোর নাম ছোট সরালি। শীতের শুরু থেকে অনেক মানুষ আসছেন পরিযায়ী পাখি দেখার জন্য। আবার পাখি শিকারিরাও আসেন। আমরা তাদের বাধা দেই, কারণ এ পাখিরা আমাদের দেশে আসে অতিথি হয়ে।

সরেজমিনে দেখা যায়, শীত প্রধান বিভিন্ন দেশ থেকে আসা এসব পাখি ও জলাশয়ের প্রাকৃতিক নয়নাভিরাম দৃশ্য দেখতে প্রতিদিন ভীড় জমায় দর্শনার্থীরা। পাখিদের কলকাকলিতে মুখরিত পুরো এলাকা। পাখি প্রেমিরা পাখিগুলোকে একনজর দেখার জন্য ছুটে আসেন দূরদূরান্ত থেকে। সন্ধ্যা নামলেই দীঘিরপাড়ের বিভিন্ন গাছে আশ্রয় নেয় এসব পাখি। ভোর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পুনরায় খাবারের সন্ধানে দিঘিতে ভীড় জমায় তারা। সারাদিন জল কেলি আর ডুব সাঁতারে ব্যস্ত থাকে তারা। পাখি দেখতে আসা ফারহান মাহতাব জাগো নিউজকে বলেন, শুনেছিলাম হাজেরা খাঁ দিঘিতে অনেক অতিথি পাখি আসে। তাই দেখতে এসেছি। ঝাকে ঝাকে পাখি দেখে মনটা ভরে গেছে।

জায়লস্কর ইউনিয়নের ওয়ার্ড মেম্বার জহির উদ্দিন বলেন, আমাদের বাড়ির সামনে এ দিঘিতে প্রতিবছরের মতো এ বছরও শত শত পাখি এসেছে। আগত এসব পাখির অভয়ারণ্যে যেন কোনো প্রকার সমস্যা না হয়, সেদিকে আমরা খেয়াল রাখছি। প্রতিদিন অনেক মানুষ এখানে পাখি দেখতে আসেন। এমন মনোমুগ্ধকর পরিবেশে হাজেরা-খাঁ দীঘিতে একবার ঘুরতে আসলে পাখিদের কলকাকলি আর জলকেলিতে মুগ্ধ হবেন।

দাগনভূঞা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মেহরাজ শারবীন জানান, হাজেরা খাঁ দিঘি এ উপজেলার জন্য একটি অহংকার। ছোট সরালি জাতের পাখিরা দিঘিতে শীত মৌসুমে আসে। অতিথি পাখিদের আবাসস্থলে যাতে কোনো সমস্যা না হয় সেজন্য আমরা স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেছি। আমাদের অতিথিদের যেন কেউ শিকার না করতে পারে সে বিষয়ে সজাগ দৃষ্টি রাখা হচ্ছে।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button