এন্টারটেইনমেন্ট

ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে  সুপিন বর্মনের “আ লেটার অব পোস্টমাস্টার

BOGRA NEWS SUPIN 22.1.2024 গত ২০ জানুয়ারি শুরু হয়েছে দ্বাবিংশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২৪। রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদের আয়োজনে ২২তম ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২৪ এর ২৩ জানুয়ারি  বিকেল পাঁচটায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে দেখা যাবে বগুড়ায় নির্মিত সুপিন বর্মন এর চলচ্চিত্র ” আ লেটার অব পোস্টমাস্টার “। নয় দিনব্যাপি এই উৎসবে বিশ্বের ৭৪ দেশের মোট ২৫০টি চলচ্চিত্র দেখা যাবে।  শর্ট ও ইন্ডিপেন্ডেন্ট ক্যাটাগরিতে দেখানো হবে সুপিন বর্মনের “আ লেটার অব পোস্টমাস্টার” চলচ্চিত্রটি। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিখ্যাত ছোটগল্প পোস্টমাস্টার এর কেন্দ্রীয়  চরিত্র রতনকে কেন্দ্র করে নিরিক্ষাধর্মী গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্রটি। এ প্রসঙ্গে নির্মাতা সুপিন বর্মন জানান এর আগে ২০১৬ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছোটগল্প পোস্টমাস্টার অবলম্বণে তিনি নির্মাণ করেছিলেন স্বল্পদৈর্ঘ চলচ্চিত্র “পোস্টমাস্টার”। সে সময় চলচ্চিত্রটি বেশ প্রশংসিত হয়েছিলো দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন চলচ্চিত্র উৎসবে। এর মধ্যে দুটি উৎসবে তিনি সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কারও পান । তারই ধারাবাহিকতায় এবং রতন চরিত্রের প্রেমে পড়া এক ক্ষুদে দর্শকের অনুরোধে নির্মাতা আ লেটার অব পোস্টমাস্টার নির্মাণে আগ্রহী হয়ে ওঠেন। চলচ্চিত্রটির গল্প সম্পর্কে  সুপিন বর্মন জানান পোস্টমাস্টারের বদলি হয়ে কলকাতায় চলে যাওয়ার মধ্য দিয়ে মূলত পোস্টমাস্টার গল্পটির সমাপ্তি ঘটে। এরপর অনাথ মেয়ে রতনের প্রতি দর্শকের এক ভালোবাসার জায়গা তৈরি হয়।

এতে করে রতনের পরবর্তী জীবন যাপন সম্পর্কে জানার আগ্রহ জন্ম নেয় কোটি দর্শকের হৃদয়ে। পরবর্তীতে কি হয় রতনের ?  জানা যায়, পোস্টমাস্টার দেখে বৈশালি নামের ৯ বছরের  একটি মেয়ে তার মায়ের কাছে জানতে চান রতনের পরবর্তী জীবন সর্ম্পকে। দাদাবাবু চলে যাওয়ার পর কি হয় রতনের?  কিন্তু মা তার সঠিক জবাব দিতে পারেন নি। তিনি মুঠোফোনের মাধ্যমে নির্মাতা কে তার মেয়ের অনুভতি জানান। সেই সাথে তিনি রতনের পরবর্তী জীবন নিয়ে একটি গল্প নির্মানের অনুরোধ জানান। এই প্রস্তাবের মাধ্যমে নির্মাতার ভাবনায় রতন কে নিয়ে জন্ম নেয় নতুন কাল্পনিক এ গল্পের।  নিরিক্ষাধর্মী ভাবনার এক জায়গা থেকেই কাল্পনিক এক গল্পনিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘আ লেটার অব পোস্টমাস্টার’। এই চলচ্চিত্রে  কিশোরী এক রতনকে দেখানো হয়েছে যে কিনা সারাক্ষণ  চষে বেড়ায় পুরো গ্রাম, মাঠ, ঘাট জঙ্গল। গ্রামের লোকজন অনাথ মেয়ে রতনকে নিয়ে চিন্তিত। অবশেষে গ্রামবাসীর আয়োজনে গ্রামের এক ধনাঢ্য বৃদ্ধের সাথে বিয়ে দেওয়ার সকল বন্দোবস্ত হয় রতনের । বিয়ের দিন সকালে হঠাৎ  কলকাতা থেকে রতনের নামে একটি চিঠি আসে। কলকাতার পোস্টমাস্টার দাদাবাবু চিঠিতে রতনকে কলকাতায় নিয়ে গিয়ে লেখাপড়া শেখানোর কথা লেখেন  কিন্তু ততক্ষণে রতন বিয়ের পিড়িতে, এরপর রতন বিয়ে করেছিলো নাকি বিয়ের পিড়ি থেকে কলকাতায় গিয়েছিল তা দেখতে হলে দর্শককে অবশ্যই আজ শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত ও নৃত্যকলার মিলনায়তনে বিকেল ৫টায় উপস্থিত থাকতে হবে। চলচ্চিত্রটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন রিয়া মনি ও শাফায়াত আনান। অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাদেকুর রহমান সুজন, খলিলুর রহমান চৌধুরী, উৎপল দত্ত, নিভা রাণী সরকার, মিজানুর রহমান, বিধান রায়, শাহাদাত হোসেন, গোপালি মোহন্ত , রবিউল ইসলাম প্রমুখ।

প্রযোজনা করেছে ‘বর্মন ফিল্ম ‘ এবং সহযোগি প্রযোজনা করেছে ‘মৌনতা অডিও’ ভিজ্যুয়্যাল লিমিটেড। বর্তমানে চলচ্চিত্রটি বিভিন্ন দেশের উৎসবে অংশগ্রহণ করার জন্য পাঠানো হয়েছে।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button