দেশ

ওমিক্রন: দেশের সব প্রবেশপথে সতর্কবার্তা

পোর্ট অব এন্ট্রিবিশ্বজুড়ে আতঙ্ক ছড়ানো করোনা ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের বিষয়ে দেশের সব পোর্ট অব এন্ট্রিতে (প্রবেশপথ) সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে। রবিবার (২৮ নভেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে এই তথ্য জানান সংস্থাটির মুখপাত্র অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট প্রতিরোধে সব ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগ।’

অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম উল্লেখ করেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া একটি নতুন ভ্যারিয়েন্টকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা উদ্বেগ হিসেবে চিহ্নিত করেছে। সেই বিষয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন ধরনের প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপ নিয়েছে। আমাদের সকল পোর্ট অব এন্ট্রিতে সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে।’
স্বাস্থ্য অধিদফতরের এই কর্মকর্তা জানান, করোনা-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি বিভিন্ন পর্যায়ে পাওয়া ডকুমেন্ট পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন, সভায় বসছেন। তার কথায়, ‘সেই সভা থেকে আমরা সকলের জন্য মঙ্গল এবং মানুষকে নিরাপত্তা দিতে যেসব কার্যকর উদ্যোগ নিতে হয়, সেগুলো গ্রহণ করতে যাচ্ছি।’
সাধারণ মানুষের প্রতি অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলামের আহ্বান, ‘কোনোভাবেই আমাদের আত্মতুষ্টিতে ভোগার কোনও কারণ নেই। করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ মোকাবিলায় ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধি এবং শিষ্টাচার মেনে চলতে হবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পাশাপাশি এই ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে উদ্বিগ্ন বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন, করোনাভাইরাস ব্যাপকভাবে রূপান্তরিত হয়ে নতুন এই রূপ নিয়েছে। এটি মারাত্মক হুমকি তৈরি করতে পারে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, করোনার নতুন এই ভ্যারিয়েন্টকে ‘ভয়ঙ্কর’ বলে আখ্যা দিয়েছেন একজন বিজ্ঞানী। আরেক বিজ্ঞানী বলেছেন, এতটা ভয়ঙ্কর ভ্যারিয়েন্ট তারা আগে দেখেননি।

ইউনিভার্সিটি অব কোয়াজুলু-নাটালের অধ্যাপক রিচার্ড লেসেলস বলেন, ‘নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে উদ্বেগের কারণ হলো, এর সংক্রমণ ক্ষমতা তুলনামূলক বেশি। এছাড়া এই ভ্যারিয়েন্ট রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে দুর্বল করে দিতে পারে।’

ওমিক্রন নিয়ে সিএনএন’কে ব্রাউন ইউনিভার্সিটির স্কুল অব পাবলিক হেলথের ডিন আশীষ ঝা বলেছেন, ‘ভ্যারিয়েন্টটি ভিন্ন আচরণ করছে। মনে হচ্ছে, এটি ডেলটার চেয়েও বেশি সংক্রামক।

এদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে যোগাযোগ স্থগিত করা হচ্ছে। সব বিমানবন্দর, স্থলবন্দর বা দেশের সব প্রবেশপথে স্ক্রিনিং আরও জোরদার করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সারা দেশে স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মেনে চলতে ও মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসনকে নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে।

ইতোমধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া ওমিক্রন এখন বেলজিয়াম, ইসরায়েল, হংকংয়ের পাশপাশি ইতালি এবং জার্মানিতেও মিলেছে। আগামী ৩ ডিসেম্বর থেকে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, চীনের উহানে আবির্ভূত হওয়ার পর করোনাভাইরাসের যত ধরন এখন পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে, তার মধ্যে ওমিক্রনেই জিন বিন্যাসে পরিবর্তন এসেছে সবচেয়ে বেশি। বিজ্ঞানীরা যে কারণে আশঙ্কা করে বলছেন, করোনা প্রতিরোধক যেসব টিকা এখন পর্যন্ত তৈরি হয়েছে সেগুলো এই ভ্যারিয়েন্টের বেলায় কাজ নাও করতে পারে। এটি আগের সব ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় দ্রুত ছড়ানোর ক্ষমতা রাখে বলেও মন্তব্য তাদের।

ভালো সংবাদের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

এমন আরো সংবাদ

Back to top button