অর্থনীতিহাইলাইটস

জ্বালানি তেল উত্তোলন লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হয়নি ওপেকের

5212গত মাসে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উত্তোলন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে উৎপাদক ও রফতানিকারকদের জোট ওপেক। প্রতি মাসে দৈনিক ২ লাখ ৫৪ হাজার ব্যারেল করে উত্তোলন বাড়ানোর কথা ছিল। কিন্তু অক্টোবরে জোটভুক্ত দেশগুলো দৈনিক ২ লাখ ১৭ হাজার ব্যারেল করে উত্তোলন বাড়াতে সক্ষম হয়। মোট দৈনিক উত্তোলনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৭৪ লাখ ৫৩ হাজার ব্যারেলে।

ওপেকভুক্ত দেশ ও রাশিয়াকে নিয়ে গঠিত ওপেক প্লাসের চুক্তি অনুযায়ী, ডিসেম্বর পর্যন্ত দৈনিক চার লাখ ব্যারেল করে জ্বালানি তেল উত্তোলনের কথা। চুক্তির অধীনে থাকা ওপেকভুক্ত ১০ সদস্য দেশের উত্তোলন বৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা দৈনিক ২ লাখ ৫৪ হাজার ব্যারেল।

ওপেকের মাসভিত্তিক জ্বালানি তেলের বাজার প্রতিবেদনে (এমওএমআর) দেখা গেছে, জোটটি সম্মিলিত উত্তোলন কোটা পূরণ ব্যর্থ হয়েছে। কোটা অনুযায়ী জোটভুক্ত কয়েকটি দেশের উত্তোলন সক্ষমতা নেই। লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ব্যর্থতার পেছনে বিষয়টিই মূল কারণ বলে মনে করছে জোটটি। এদিকে ওপেকের সবচেয়ে বড় জ্বালানি তেল উত্তোলক এবং বিশ্বের শীর্ষ রফতানিকারক সৌদি আরব প্রায় কোটার সমপরিমাণ উত্তোলন বাড়াতে সক্ষম হয়েছে। দেশটি দৈনিক ১ লাখ ১০ হাজার ব্যারেল করে উত্তোলন বাড়িয়েছে। মোট উত্তোলন দাঁড়িয়েছে দৈনিক ৯৭ লাখ ৫৯ হাজার ব্যারেলে। অন্যদিকে বেশ কয়েকটি আফ্রিকান সদস্য দেশ শুধু কোটা পূরণেই ব্যর্থ হয়নি, বরং সেপ্টেম্বরের তুলনায়ও দেশগুলোর উত্তোলন কমেছে। এর মধ্যে গত মাসে নাইজেরিয়া, গ্যাবন ও বিষুবীয় গিনির উত্তোলন লক্ষণীয় মাত্রায় কমেছে। সবচেয়ে বেশি কমেছে নাইজেরিয়ার উত্তোলন। দৈনিক ৪৫ হাজার ব্যারেল করে কমে দেশটির দৈনিক উত্তোলন দাঁড়িয়েছে ১৩ লাখ ৫৪ হাজার ব্যারেলে। গ্যাবন ও বিষুবীয় গিনির উত্তোলন দৈনিক ৩০ হাজার ব্যারেল করে কমেছে।

ভালো সংবাদের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

এমন আরো সংবাদ

Back to top button