হিরো অফ দি ডে

সাকিবের আরও এক অনন্য কীর্তি

সাকিব আল হাসান মাঠে নামা মানেই যেন রেকর্ডের খাতায় নতুন আঁকিবুঁকি। সর্বশেষ পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে বাংলাদেশের বিশাল জয়ের ম্যাচে শহীদ আফ্রিদির রেকর্ড স্পর্শ করেছেন তিনি। তবে একই ম্যাচে আরও এক অনন্য কীর্তি গড়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।  স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলা প্রায় অনিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশের। তবে ওমান ও পাপুয়া নিউগিনিকে হারিয়ে সেই শঙ্কা দূর করে পরের পর্ব নিশ্চিত করেছে টাইগাররা। এই দুই ম্যাচেই ম্যাচ সেরা হয়েছেন সাকিব। এই নিয়ে আইসিসির কোনো ইভেন্টে খেলা বাংলাদেশের সর্বশেষ ছয় ম্যাচেই সেরা খেলোয়াড়ের মুকুট জিতেছেন তিনি, যে কীর্তি নেই আর কারো।

সাকিবের এই ছয় ম্যাচ সেরার অভিযানের শুরুটা ২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফি থেকে। সেবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জেতা ম্যাচে মাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। ২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে কার্ডিফে বাংলাদেশের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ড করেছিল ৮ উইকেটে ২৬৫। জবাবে ৩৩ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর জয়ের আশা ছেড়ে দেন অনেকে। মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে পঞ্চম উইকেটে সাকিবের ২২৪ রানের জুটি ঘুরিয়ে দেয় ম্যাচের ভাগ্য। ১৬ বল হাতে রেখে বাংলাদেশ জেতে ৫ উইকেটে। ১১৪ রানের ইনিংসে ম্যাচসেরা সাকিব।

এরপর ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের তিন জয়ের প্রথমটি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। ওভালে মাশরাফি বিন মর্তুজার দলের ৩৩০ রানের জবাবে প্রোটিয়ারা থামে ৮ উইকেটে ৩০৯ রানে। ৭৫ রানের পাশাপাশি ১০ ওভারে ৫০ রানে ১ উইকেট নিয়ে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার সাকিবের। সেই বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১২৪ রানে অপরাজিত থাকার পর ৫৪ রানে ২ উইকেট নিয়ে সেরা আবারও। আর তৃতীয়বার পুরস্কারটি জেতেন আফগানদের বিপক্ষে ২৯ রানে ৫ উইকেট ও ব্যাটে ৫১ করে।

এবারের বিশ্বকাপে ওমানের সঙ্গে বাঁচা-মরার ম্যাচেও নায়ক সাকিব। দলকে জেতান ৪২ রানের পর ৩ উইকেট নিয়ে। এরপর পিএনজির বিপক্ষে আর বেশি উজ্জ্বল তিনি। ৩৭ বলে ৪৬ রানের পর স্পিন জাদুতে মাত্র ৯ রানে শিকার ৪ উইকেট। তাতে কীর্তি হয়েছে আরো। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যৌথ সর্বোচ্চ ৩৯ উইকেট এখন সাকিবের। শহীদ আফ্রিদি ৩৯ উইকেট নিয়েছিলেন ৩৪ ম্যাচে। সাকিব তাঁকে ছুঁয়েছেন ২৮ ম্যাচে।

ভালো সংবাদের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

এমন আরো সংবাদ

Back to top button