প্রবাস

বৃক্ষরোপন খাতে ৩২ হাজার বিদেশি কর্মী নিয়োগ দিবে মালয়েশিয়া

798
Processed with VSCO with ss2 preset

বৃক্ষরোপন খাতে ৩২ হাজার বিদেশি কর্মী নিয়োগ দিবে মালয়েশিয়া। সরকারের পক্ষ থেকে বাগান খাতে শ্রমিকের ঘাটতি দূর করতে ৩২ হাজার বিদেশী কর্মী নিয়োগে মন্ত্রী সভা সম্মত হয়েছে এবং “জরুরী প্রয়োজনে উৎস দেশ থেকে বিদেশী কর্মী নিয়োগের প্রস্তুুতি চলছে।
১৭ সেপ্টেম্বর মানব সম্পদমন্ত্রী দাতুক সেরী এম সারভানান এক বিবৃতিতে এ কথা জানান।
এ ছাড়া মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় (এমওএইচআর) স্ট্যান্ডিং অর্ডার অব অপারেশন (এসওপি) খসড়া করেছে এবং কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের (কেএলআইএ) কাছে একটি বিদেশী শ্রমিক কোয়ারেন্টাইন সেন্টার চিহ্নিত করেছে যেখানে একসঙ্গে ২ হাজার কর্মচারী থাকতে পারবে।
সারাভানান বিবৃতিতে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে (অর্থনীতি) দাতুক সেরি মুস্তাপা মোহাম্মদের ১২ সেপ্টেম্বরের বিবৃতিতে তেল পামসহ বাগান খাতে জনবলের ঘাটতি রয়েছে, তা দূরীকরণে মানব সম্পদ মন্ত্রণালয় একমত পোষণ করেছে । “রোপণ খাতে শ্রমিকের অভাব জাতীয় আয়ের ক্ষতির ঝুঁকি তৈরি করেছে যা বছরে ২০ বিলিয়ন রিঙ্গিত, বিশেষ করে তেল পাম খাতে।
“এ ক্ষেত্রে, কেএসএম স্থানীয় কর্মীদের দ্বারা শূন্যপদ পূরণ করতে উত্সাহিত করার পরও কোনো সাড়া মিলেনি। ফলে, বিদেশী শ্রম দ্বারা শূন্যস্থান পূরণ করা দরকার বলে ব্যাখ্যা করেন মন্ত্রী।
১২ সেপ্টেম্বর মুস্তাপা তার রিপোর্টে বলেছেন, তেল পাম শিল্পকে বড় সমস্যার মুখোমুখি হতে উওরণে তিন সপ্তাহের মধ্যে এ বিদেশী শ্রমিকের অভাবের সমস্যা সমাধান করা হবে।
এ দিকে পাম বাগানের শ্রমিক সংকট দূরীকরণে বিদেশি কর্মী নিয়োগের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে, দেশটির চীনা চেম্বার অব কমার্স। চীনা চেম্বার অব কমার্স শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেছে, এই পদক্ষেপ পাম অয়েল শিল্পসহ বৃক্ষরোপণ খাতকে স্বস্তি দেবে।
কমার্সের সভাপতি দাতুক লো কিয়ান চুয়ান আশা করেন, সরকার প্রয়োজনীয় এসওপি সাপেক্ষে উত্পাদন ও নির্মাণ খাতে শ্রমিকের ঘাটতি দূর করতে সহায়তা এবং অনুরূপ ব্যবস্থা বাস্তবায়নের বিষয়ে বিবেচনা করতে পারে।
“এর আগে কমার্সের পক্ষ থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং মানবসম্পদ মন্ত্রীকে শ্রমিক সংকটের কথা জানানো হয়েছিল। বিদেশী জনশক্তির ঘাটতি অব্যাহত থাকলে শিল্পগুলি চাহিদায় শক্তিশালী পুনরুজ্জীবনের যাত্রা থেকে বঞ্চিত হবে।
বিদেশী কর্মীদের আবেদন প্রয়োগ ও অনুমোদনের জন্য একটি স্বচ্ছ সিস্টেমের অধীনে নিয়োগ প্রক্রিয়া পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণের জন্য একটি সামগ্রিক পদ্ধতির প্রয়োজন।
এ ছাড়া বিদেশী শ্রমিকদের উপর অতিরিক্ত নির্ভরতা কমাতে সরকারের আহ্বানকে সমর্থন করে, বিশেষ করে নিম্ন-দক্ষরা যেহেতু আমাদের দেশ একটি উচ্চ আয়ের দেশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে যেখানে প্রযুক্তি এবং অটোমেশন গ্রহণকারী শিল্পগুলি রয়েছে।
কমার্স বলছে, শিল্প এবং ব্যবসাগুলি কর্তৃপক্ষের সাথে একত্রে কাজ করার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ যাতে আইন অনুযায়ী নির্ধারিত ন্যূনতম মান এবং আবাসন এবং সুবিধার পাশাপাশি ন্যায়সঙ্গত আচরণের ন্যূনতম শ্রম অনুশীলনের উপর ভিত্তি করে একটি টেকসই অভিবাসী শ্রমিক নিয়োগ ব্যবস্থা তৈরি করা যায়।
কমার্স সভাপতি বলেন, “আমরা মার্কিন সরকার কর্তৃক দেশটিকে সবচেয়ে খারাপ পর্যায়ে নামিয়ে আনার পর জোরপূর্বক শ্রম দূর করার পদক্ষেপ গ্রহণে সরকারের প্রতিশ্রুতিকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেন, “রেটিং উন্নত করতে ব্যর্থ হলে আমাদের দেশের ভাবমূর্তি এবং মালয়েশিযার কোম্পানিগুলির সুনাম হুমকির মুখে পড়বে বলেও যোগ করেন চীনা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি দাতুক লো কিয়ান চুয়ান,”

ভালো সংবাদের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

মাধ্যম
আহমাদুল কবির

এমন আরো সংবাদ

Back to top button