বিদেশ

কপ২৬ সম্মেলনের বাইরে থাকতে পারে দরিদ্র দেশগুলো!

63+.আগামী মাসে স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলন (কপ২৬)। এ সম্মেলনে অংশ নিতে মানতে হবে যুক্তরাজ্যের কভিডজনিত বিধিনিষেধ। তবে কভিড-১৯ টিকার স্বল্পতা দরিদ্র দেশগুলোকে এ সম্মেলনে বাইরে রাখতে পারে। এজন্য টিকা ও কোয়ারেন্টিন প্রয়োজনীয়তা পূরণে সহায়তা চেয়েছে স্বল্পোন্নত দেশগুলো (এলডিসি)।

কপ২৬ সম্মেলনের লক্ষ্য হলো, ২০৫০ সালের মধ্যে মানবসৃষ্ট গ্রিনহাউজ গ্যাসের নিঃসরণ কমিয়ে আনা এবং জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় বৈশ্বিক গড় তাপমাত্রা বৃদ্ধি ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নামিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি ত্বরান্বিত করা।

স্বল্পোন্নত ৪৬টি দেশের গ্রুপের চেয়ারম্যান ভুটানের সোনম ফাংশু ওয়াংদি বলেন, এলডিসি গ্রুপের প্রতিনিধিরা গ্লাসগো যাওয়া নিয়ে উদ্বিগ্ন। আমাদের দেশ ও জনগণ জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত। অথচ এ সম্মেলন থেকে আমাদের ছিটকে পড়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। বিশ্ব এ সংকট কীভাবে মোকাবেলা করবে তা নির্ধারণ করতে যাওয়ার আলোচনা থেকে আমাদের বাদ দেয়া উচিত নয়।

ইথিওপিয়া, হাইতি ও বাংলাদেশের মতো প্রায় ২০টি এলডিসিভুক্ত দেশ যুক্তরাজ্যের লাল তালিকায় রয়েছে। অর্থাৎ এ দেশগুলোর প্রতিনিধিদের ৩১ অক্টোবর থেকে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত চলা কপ২৬ আলোচনায় অংশ নেয়ার আগে ১০ দিন একটি হোটেলে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

যুক্তরাজ্য জানিয়েছে, তারা লাল তালিকাভুক্ত দেশগুলোর কর্মকর্তাদের কোয়ারেন্টিন ব্যয় বহন করবে এবং টিকা নেয়া কর্মকর্তাদের কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ পাঁচদিন কমিয়েছে।

এলডিসিভুক্ত দেশগুলোর প্রতিনিধিদের অনেকেই এখনো টিকা নিতে পারেননি। টিকা পেতে প্রতিনিধিদের অসুবিধার কারণে জলবায়ু অ্যাকশন নেটওয়ার্ক এ সম্মেলন স্থগিত করার আহ্বান জানিয়েছে।

ভালো সংবাদের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

এমন আরো সংবাদ

ভালো সংবাদ
Close
Back to top button