মতামতহাইলাইটস

বাংলাদেশ ও তালেবানি উচ্ছাস আর ভয়!

তালিবানকিছু কিছু লোক দেখি দেশে তালিবান নিয়ে খুবই উচ্ছসিত; তার উল্টা পিঠে আবার কিছু কিছু লোক খুবই চিন্তিত যে তালেবানের এই সফলতা আবার আমাদের দেশে প্রভাবিত করে কিনা ? আমার মনে হয় দুইটা বিষয়ই  অতি আবেগ তাড়িত  হয়ে প্রকাশ পাচ্ছে  ,তালেবান মনে হয় না আদর্শিক কোনো সংগঠন বরঞ্চ আদর্শের  চেয়ে বেশি নিজ দেশে নিজের ক্ষমতা পাওয়ার জন্য মরিয়া; তালেবানরা প্রায় ৯৫ ভাগই পশতুন জনগোষ্ঠীর, তাদের আবার অনেক গোত্র, গোত্রদের আবার নিজস্ব কিছু সামাজিক ও সাংস্কৃতিক বিষয় আছে; পশতুন রা নিজেরা খুব কম অন্যের দ্বারা শাসিত হয়েছে এমনকি প্রত্যেক গোত্রের কিছু  বিষয় ওই গোত্রেই মীমাংসা করা হয়; ওদের কিছু সামাজিক বিষয় আছে যেগুলো হাজার বছর ধরে চলে আসছে, এগুলো ধর্মের সঙ্গে মিশিয়ে দিয়ে চালানো অন্তত আমাদের দেশে সম্ভব না; আমাদের দেশে এখন ধর্মীয় ভাবে অনেক শিক্ষিত লোক আছে যারা জানে সঠিক কোনটা আর কোনটা গোড়ামি বা ধর্মের সঙ্গে সম্পর্ক নাই |

আমাদের জানতে হবে তাদের পূর্বের কার্য্যক্রম, এবার যদিও তারা বলছে যে তারা পরিবর্তিত কিন্তু কিছুদিন অন্তত কয়েক মাস না দেখলে বোঝা যাবে না; এদেশের লোকজনই তাদের কথায় পুরোপুরি আস্থা রাখতে পারছে না, তারাও গভীরভাবে পর্য্যবেক্ষন করছে |

আমাদের মনে রাখতে হবে তাদের বিগত ইতিহাস; ওই ইতিহাস বলে দেয় তারা কেমন ছিল; তারা যদি বদলে যায় তাহলে এই বদল ওই অতীত ইতিহাসের কালো অধ্যায় যদি ঢেকে না দিতে পারে তাহলে তাদের এই বদলে যাওয়া কোনো কাজে আসবে না |

আমার মনে হয় আমাদের বিভিন্ন বাহিনী যে সফলতার সঙ্গে অন্য বিপথগামী দল যারা চিন্তায় ও  বুদ্ধিবৃত্তিক ভাবে তালেবানের চেয়ে অনেক কৌশলী তাদের কে পর্যুদস্ত করেছে, এই তালেবানরা হয়তো যুদ্ধ করতে পারে তাও মনে হয় আফগান ভৌগোলিক পরিবেশে, বাংলাদেশ সম্পূর্ণ আলাদা, আমাদের লোকজন উদার, অসাম্প্রদায়িক (যেকোনো ধর্মের অনুসারী চাইতে গোটা উপমহাদেশের মধ্যে   পূর্ববাংলার এখনকার বাংলাদেশ এর মানুষ বেশি অসাম্রদায়িক) ব্যাপক জনগোষ্ঠী (আমার মতে ৯৫% হবে) , শিক্ষা ও সামাজিক ভাবে অনেক উন্নত আর বাংলাদেশ কোনোভাবেই সশস্ত্র আন্দোলনের কোনো ক্ষেত্র না আর আছে আমাদের সংগঠিত ও অত্যন্ত পেশাদারি সৈন্য বাহিনী ;

এখকার আফগান পরিস্থিতি হচ্ছে আফগান বিশেষ একটা বাহিনী এর পোস্টার বাণীর মতো ” মান তুরে বেবিনিম ” অর্থাৎ আমরা/আমি তোমাকে দেখছি” , যেখানে বিশেষ একটা ছবির সঙ্গে হাত উঁচিয়ে অঙ্গুলি নির্দেশ করে যেন পথচারীকে বলছে ; এখন গোটা আফগানিস্তান এর জনগণ সহ অন্য সব দেশ তাদের দেখছে/ পর্যবেক্ষণ করছে ; সময় বলে দিবে ওদের বদলে যাওয়া আর না যাওয়ার কথা এবং কোথায় নিয়ে যায় আফগানিস্তানকে !

ভালো সংবাদের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন

এমন আরো সংবাদ

Back to top button